মৎস্য বিভাগ ও কোস্টগার্ডের সাঁড়াশি অভিযান

প্রকাশিত: ১২:৪৪ অপরাহ্ণ, মার্চ ৩, ২০২১
লাইট হাউজ ফাইল ফোটো

নিজস্ব সংবাদদাতা :  মঙ্গলবার সকাল থেকে মৎস্য বিভাগ ও কোস্টগার্ডের সাঁড়াশি অভিযান শুরু হয়েছে।

পদ্মা, মেঘনা ও তেঁতুলিয়াসহ অভয়াশ্রমগুলোতে অভিযান চালায় মৎস্য বিভাগ ও কোস্টগার্ড।

প্রশাসনের তৎপরতায় অনেক নদীতে মাছ ধরার নৌকা দেখা যায়নি।

তবে, চাঁদপুর সদরের রাজেশ্বর এলাকার পদ্মানদীতে কয়েকজন জেলের মাছ ধরার খবরে অভিযান চালায় কোস্টগার্ড।

উপস্থিতি টের পেয়ে জেলেরা দ্রুত পালিয়ে গেলেও জব্দ করা হয় ১০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল।  পরে সেগুলো পুড়িয়ে ফেলা হয়।

চাঁদপুর মৎস্য কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম জানায়, পদ্মার মুখে অভিযান পরিচালনার করেন।

 

সেখানে কারেন্ট জাল সহ কিছু নৌকা দেখতে পায়ে তারা তাৎক্ষণিকভাবে ধাওয়া করে ফলে জেলেরা জাহাজ ছেড়ে পালিয়ে উপকূলে  চলে যায়।

চাঁদপুর কোস্টগার্ডের স্টেশন কমান্ডার লে. মো. আসাদুজ্জামান বলেন, কোস্টগার্ডের টহল টিম সাদনাল থেকে হায়িংছা পর্যন্ত  প্রত্যেকটি অভয়াশ্রমে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করেন।

কোস্টগার্ডের সার্বক্ষণিক অবস্থানের জন্য জেলেরা নদীতে অবস্থান করতে সাহস পাচ্ছে না বলেও জানান তিনি।

মৎস্য বিভাগ ও কোস্টগার্ডের সাঁড়াশি অভিযান এ পটুয়াখালীর বাউফলের তেঁতুলিয়া নদীতে ও ঝটিকা অভিযানে ধরা পরে ১০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল পরে সেগুলোও পুড়িয়ে ফেলা হয়।

অপরদিকে ভোরাই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ ধরার অপরাধে ২২ জেলেকে কারাদণ্ড দেওয়া হয় এবং জব্দ করা হয় ৩০ হাজার মিটার জাল ও একটি  মাছ ধরার জাহাজ সাথে এক কেজি ইলিশ মাছও।

আরোও পড়ুন…

বঙ্গোপসাগরের গভীর সমুদ্রে ফিশিং ট্রলার ডুবে ৪ জনের মৃত্যু এবং ৬ জন নিখোঁজ