HAPPY SEAFARER’S DAY 2020: ফরাসি অভিযাত্রী

প্রকাশিত: ১২:০২ পূর্বাহ্ণ, জুন ২৫, ২০২০

রাস্তাঘাটে পথ চলতে অনেকেই নানারকম দুর্ঘটনায় পড়েন। আমরা দেখলেও না দেখার ভান করি। অনেকেই মনকে সান্ত্বনা দিয়ে কিংবা নানা অজুহাত খাড়া করে বিপদ্গ্রস্থ মানুষকে এড়িয়ে চলে যাই । মানবতা আজ আমাদের সমাজে ভূলুণ্ঠিত।

কিন্তু মেরিনারদের ক্ষেত্রে এরকম ঘটে না। মেরিনাররা জানে নিজেরাই নিজেদের সবচে বড় বন্ধু, নিজেরাই নিজেদের অবলম্বন। তাই কেউ বিপদে পড়লে অনেক ক্ষতি স্বীকার করে হলেও অন্য মেরিনাররা সাহায্যে এগিয়ে আসে। মানুষের জীবন আর মানবতা সামুদ্রিক জীবনের সবচেয়ে বড় অগ্রাধিকার।

কয়েক বছর আগের ঘটনা।

এক এডভেঞ্চার প্রিয় ফরাসি দম্পতি সমুদ্র অভিযানে বেরিয়েছে। ফরাসি পোর্ট মার্সেই হতে সুয়েজ খাল হয়ে ভারত মহাসাগরের দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থিত ফরাসি দ্বীপ লা রিইউনিয়ন আইল্যান্ডে অবকাশ যাপনের উদ্দেশ্যে যাত্রা। একটা সেইলিং ইয়ট ভাড়া নিয়ে যাত্রা শুরু। সাথে ছিল পর্যাপ্ত খাবার, জ্বালানি (ডিজেল), মোবাইল ফোন ও অন্যান্য বিনোদন সামগ্রী।

বোট ক্যাপ্টেন আর ফরাসি দম্পতি মিলে মোট ৩ জন। ইয়ট সুয়েজ খাল – লোহিত সাগর – গালফ অফ এডেন পেরিয়ে আরব সাগরে এসে ঝড়ে পড়ল। বেশ কদিনের ঝড়, বিক্ষুব্ধ সমুদ্র আর দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়াতে পড়ে দিকভ্রান্ত হয়ে বোট গন্তব্য হতে কয়েকশ মাইল দূরে ভারত মহাসাগরের মাঝে গিয়ে ভাসতে লাগলো। শুধু সেইল দিয়ে বাতাসের উপর ভর করে যাবার দুরূহ চেষ্টা সফল হল না। সাথে আনা খাবার আর পানি ইতিমধ্যে শেষ। ডিজেলও শেষ, ইঞ্জিন চলছে না। ইমারজেন্সি পাওয়ার প্যাক ছাড়া সবকিছুই অকেজো। এস ও এস বার্তায় শেষ অবস্থানটুকু শুধু জানাতে পেরেছে বোট ক্যাপ্টেন।

যেখানে ভাসছিল তার আশপাশ দিয়ে খুব কম জাহাজ যাতায়াত করে। এভাবে কদিন কাটার পর সৌভাগ্যক্রমে আমরা ওদের ২৫-৩০ মাইল দূর দিয়ে যাচ্ছিলাম। রেস্কিউ সেন্টার হতে ফোন এল জাহাজে সাহায্যের আবেদন জানিয়ে। মেসেজে বোটের আনুমানিক অবস্থান জানা গেল। কোম্পানিকে জানিয়ে আমরা আমাদের ভয়েজ সাময়িক স্থগিত করে রওয়ানা হলাম ইয়টটাকে সাহায্য করতে। খুঁজতে খুঁজতে পেয়েও গেলাম কয়েক ঘণ্টা পর।

৩ জনেরই মুমূর্ষু অবস্থা। দম্পতির বয়স ৫০ এর ঘরে। ডিজেল, খাবার আর পানি ইত্যাদি জাহাজ হতে সরবরাহ করা হল। ওদের কৃতজ্ঞতা আর আমাদের খুশি আকাশ ছুঁয়ে গেল। মানুষকে বিপদে সাহায্য করার মত আনন্দ আর কিছুতে নেই। আরও জানা গেল কয় ঘণ্টা পরেই ফ্রেঞ্চ নৌবাহিনীর একটা জাহাজ সেখানে এসে পৌঁছাবে আর বাকি সহায়তা প্রদান করবে। তাই আমরা আমাদের দায়িত্ব শেষ করে আবার গন্তব্যের উদ্দেশ্যে যাত্রা করলাম।



আমরা সেইলর….
সকলের তরে সকলে আমরা, প্রত্যেকে আমরা পরের তরে।
লেখক-Capt. Atique Khan
BMA, 27TH